উনিশ শো একাত্তর

ভাস্কর চৌধুরী
ভাস্কর চৌধুরী 310 Views

উনিশ শো একাত্তর কোন বই এর পৃষ্ঠা নয়
উনিশ শো একাত্তর কোন সংখ্যা নয়
উনিশ শো একাত্তর কোন সাল নয়
উনিশ শো একাত্তর কোন মোহনী নারী নন,
শেখ মুজিব, আপনি জানেন
উনিশ শো একাত্তর কাকে বলে
এদেশের সে সময়ের কোটি কোটি মানুষ জানেন
কয়েক হাজার এখানে ওখানে সেখানে
ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা গণকবর জানে
জীবন, দেশত্যাগী ও মৃত্যু জানে
রেসকোর্সের ধাঙড় বসতি জানে
পুলিশ লাইন রাজারবাগ পিলখানা জানে
আমাদের বয়েসী সেদিনের যুবকেরা জানে
সন্তান হারিয়ে মা জানেন
পিতা জানেন
প্রপিতা নাতির ছেলের ঘাড়ের বাঁকের ঝুড়িতে বসে জানেন
আমার মা আঁচল দিয়ে সকল সন্তান ঢেকে
মূলতঃ সকলি ফাঁকা
আমরাও জানি, ওটুকু আঁচল ছিলো সারা বাংলাদেশ
আমাদের মায়েরা জানেন
ধর্ষিতা গুলিখেকো এবং ফেলে যাওয়া লক্ষ নারী জানেন
এই নাড়িপোঁতা মাটির প্রতিকণা জানে
উনিশো একাত্তর কোন সাল নয়
রাজার হাতুড়ি নয়
সিংহের আসন নয়
কারো শাসনের কাল নয়
উনিশ শো একাত্তর শুধু সব নিয়ে
সারা বাংলাদেশ।
আমার লাল সবুজের পতাকা ওড়ানো কাল
কাঁধে রাইফেল নিয়ে মুক্তিযোদ্ধার
দীপ্ত চিত্তে ধূলিলিপ্ত পায়ে ক্রমশঃ
বাংলার মাটি ছুঁয়ে বুকে ক্রলিং করে
অথবা হেঁটে
অথবা নদীতে সাঁতার কেটে
ডিসেম্বরের শীতে ঘরে ফেরার কাল
প্রতিটি মুক্তিযোদ্ধা জানেন
উনিশ শো একাত্তর
কোন সংখ্যা নয়, সাল নয়, গতরের জামা নয়
উনিশো একাত্তরে আছে
সাত মার্চ, পঁচিশের রাতের নৃশংসতা
আর শেষে পতাকা ওড়ানো সেই
ষোলই ডিসেম্বর।

Share This Article
খ্যাতিমান কবি, সাহিত্যিক ভাস্কর চৌধুরী ১৯৫২ সালের ১৭ নভেম্বর চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের রাজারামপুরের ভবানীপুর গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ছাত্রজীবন থেকেই সাহিত্যিক ‘ভাস্কর চৌধুরীর’ লেখালেখি শুরু। তিনি লিটল ম্যাগাজিন ছাড়াও বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক ও স্থানীয় পত্র-পত্রিকায় গল্প, উপন্যাস, কবিতা, প্রবন্ধ প্রভৃতি নিয়মিত লিখে থাকেন। রক্তপাতের ব্যাকরণ (১৯৮৪-গল্পগ্রন্থ), বাষট্টি বিঘা নদী (১৯৮৭-গল্পগ্রন্থ), কোথায় নিবাস (১৯৮৭-গল্পগ্রন্থ), পতনের সময় (১৯৮৮-গল্পগ্রন্থ), শনিবারে বৃষ্টি (১৯৯৯-গল্পগ্রন্থ), লালমাটি কালো মানুষ (১৯৯৮-উপন্যাস), স্বপ্নপুরুষ (১৯৯৮-উপন্যাস). মীমাংসা পর্ব (১৯৯৮-উপন্যাস) আষাড়ের জীবনদর্শণ (১৯৯৯-উপন্যাস) ভূমি (২০১১- উপন্যাস), কৃষ্ণপুরাণ (২০১১-উপন্যাস), কখনও কখনও এরকম ঘটে (২০১২-উপন্যাস)। আমার কেবলই সমর্পণ (১৯৮৬-কবিতা), নিরঞ্জন আমার বন্ধুর নাম (২০১২-কবিতা), আমার ভেতরে আঁধার (২০১২-কবিতা), পরাণের গহীন (২০১২-কবিতা), তোর বড় কষ্টরে (২০১২-কবিতা) প্রভৃতি তাঁর প্রকাশিত উল্লেখযোগ্য মৌলিক সৃষ্টিশীল গ্রন্থ।